ভাটির বধূ

জল আনতে চলে বধূ
একলা নদীর ধারে,
ঝিনুকের মেখলা দোলে
বাঁকা কোমরে।

ঝমঝমিয়ে মল বাজিয়ে
কলসী কাঁখে বধূ,
নদীর ধারে একলা চলে
চারপাশে ধুধূ।

জলের উপর ছায়া দেখে
বধূর লাগে লাজ,
আঁচল দিয়ে ঢাকে তাহার
নিশুত রাতের সাজ।

জলের স্রোতে বধূর লাগে
ভাটির গানের সুর,
গুনগুনিয়ে গাইছে সে তাই
বাজিয়ে পায়ের নুপুর।

বধূয়ার হাসির ঝিলিক
বুকে বিঁধে হায়,
নীলাঞ্জনা বধূ চলে
রুপার নুপুর পায়।


Copyrights © 2020 Arefin | Gastroenterology | Developed by Chumbok IT